Welcome To Principal Jalal Uddin Model Madrasa

ধর্মীয় মূল্যবোধের ভিত্তিতে আদর্শ ও সুনাগরিক গড়ে তোলাই আমাদের লক্ষ্য

প্রতিষ্ঠান পরিচিতি

মরহুম অধ্যক্ষ জালাল উদ্দিন একজন সমাজ সংস্কারক, বিদ্যোৎসাহী , রাজনীতিবিদ  এবং সর্বপরি গণমানুষের নন্দিত ব্যক্তি ছিলেন । ‍যিনি টেপামধুপুরে ২০০৩ সালে প্রতিষ্ঠিত সমাজ কল্যাণ কিন্ডার গার্টেন -এর প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ ছিলেন । যার অক্লান্ত পরিশ্রমে সমাজ কল্যাণ কিন্ডার গার্টেন আজ সফলতার শীর্ষে অবস্থান করছে । ‍যিনি সকল শ্রেণী পেশার মানুষের হৃদয়ের মণিকোঠায় অল্প সময়ের মধ্যে স্থান করে নিতে সক্ষম হয়েছেন । যার মৃত্যুতে অত্রাঞ্চলের আবাল বৃদ্ধবনিতা চোখের পানি ঝরিয়েছে । অধ্যক্ষ জালাল উদ্দিন ২০১৫ সালের ২২ রমজান দিবাগত রাত ৩.১৫ মিনিটে শেষ নি:শ্বাস ত্যাগ করেন ।

একজন ক্ষণজন্মা জালাল উদ্দিন আর হয়ত জন্মাবে না । কিন্তু তার স্মৃতি ও স্বপ্নকে ধারন করে মরহুমের আত্মার মাগফেরাত কামনায় আমরা অধ্যক্ষ জালাল উদ্দিন মডেল মাদ্রাসা নামে একটি প্রতিষ্ঠান গঠনের উদ্যোগ গ্রহণ করেছি । আপনাদের সার্বিক সহযোগীতা ও সুদৃষ্টি কামনা করছি । একজন শিক্ষাবিদ হিসেবে তার সুনাম যথেষ্ট , গরীব দু:খী মানুষের বিপদে আপদে তার বিচরন ছিল অনস্বীকার্য ।সমাজে তার অবদান চোখে পড়ার মত না হলেও মানুষ গড়ার কারিগর হিসেবে ছিলেন এক মূর্তপ্রতীক । সর্বোপরি বলতে গেলে তিনি ছিলেন একজন আদর্শ ও সমাজ সচেতন মানুষ । মহান সৃষ্টিকর্তার কাছে আবেদন তিনি যেন মরহুম জালাল উদ্দিনকে জান্নাতের সর্বোচ্চ শিখরে স্থান করে দেন । আমিন ।

মাদ্রাসাটির লক্ষ্য ও উদ্দশ্যে 
আর্দশ এবং দেশপ্রমেকি সুশক্ষিতি নাগরিক তৈরির নিমিত্তে সরকারী নীতির সামন্জস্য রেখে বাস্তব ভিত্তিক শিক্ষাপোকরন তথা সিলেবাস , শিক্ষাদান পদ্ধতি ও উন্নত পরবিশ সৃষ্টির মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের মেধা , যোগ্যতা ও মননশীল প্রতিভা বিকাশের সমস্ত প্রয়াস চালানো প্রতষ্ঠিানের লক্ষ্য এবং এর মাধ্যমে আল্লাহর সন্তুষ্টি র্অজন হচ্ছে উদ্দশ্যে ।

 

ব্যবস্থাপনা পরিচালকের কথা 

অধ্যক্ষ জালাল উদ্দিন মডেল মাদ্রাসা নামকরণটি একটি আবেগ ও অনুভূতির নাম । ভৌগোলিক দিক থেকে অত্রাঞ্চলের মানুষ সবসময় ধর্ম ভীরু । অত্র এলাকায় আমরা প্রায় সকল ধর্মের মানুষ সামপ্রদায়িক সম্প্রীতির মধ্যে এবং অত্যন্ত সৌহার্দ্যপূর্ণ পরিবেশে বসবাস করছি । বর্তমান সমাজ ব্যবস্থায় ধর্মীয় ও সামাজিক মূল্যবোধ নেই বললেই চলে । সেই মূল্যবোধগুলো ফিরিয়ে আনার লক্ষ্যে আমাদের এ ক্ষুদ্র প্রয়াস । এ অঞ্চলে ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের অভাব নেই । তথাপি মানসম্মত ও আধুনিক প্রতিষ্ঠান নেই  বললেই চলে । উল্লেখিত বৈশিষ্ট্য সমূহ বাস্তবায়ন করতে পারলে একটি আদর্শ প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলা সম্ভব । আমরা আশা করছি উল্লেখিত বৈশিষ্ট্য সমূহ শতভাগ বাস্তবায়িত হবে ইনশা-আল্লাহ ।

                                                                                                              ------ মমিনুল ইসলাম সাজু 

Why Choose Principal Jalal Uddin Model Madrasa?

* মাল্টিমিডিয়া প্রজেক্টরের মাধ্যমে ক্লাস পরিচালনা ।

* অটো এটেনডেন্স ।

* হেফজ বিভাগ ( ছেলে মেয়ে পৃথক ব্যাচ )।

* শিক্ষক ও শিক্ষার্থীর অনুপাত ১:১৫ ।

* অভিজ্ঞ ও দক্ষ শিক্ষকমন্ডলী ।

* ইসলামী শিক্ষার পাশাপাশি আধুনিক শিক্ষার সুব্যবস্থা ।

* বাস্তব জীবনে ইসলামের পূর্ণ অনুশীলন ।

* প্লে থেকে শুদ্ধ বাংলা, আরবী ও ইংরেজীতে কথা বলার অভ্যাস তৈরি ।

* শিক্ষার্থীদের সুপ্ত প্রতিভা বিকাশের লক্ষ্যে Co-curriculum Activities ( আবৃত্তি, কুইজ , বিতর্ক প্রতিযোগীতা , গল্পবলা , ক্বিরাত , হামদ্ , না’ত ইত্যাদি ।

* মনোরম ও নিরিবিলি পরিবেশে পাঠদান ।

* আধুনিক ও মানসম্মত শ্রেনীকক্ষ ।

* পশ্চাৎপদ শিক্ষার্থীদের Extra class নেয়া ।

* সাপ্তাহিক Teachers Training এর মাধ্যমে শিক্ষক/শিক্ষিকাদের শিক্ষাদানের মানকে আরো উন্নত করা ।

* আবাসিক / অনাবাসিক / ডে-কেয়ার ও পরিবহন ব্যবস্থা ।

* গরীব ও মেধাবী ছাত্রছাত্রীদের জন্য বৃত্তির ব্যবস্থা ও বিশেষ সুবিধা প্রদান ।

* ছাত্রছাত্রীদের ক্লাসে উপস্থিতি কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রন । ‍

* নিরাপদ ও শালীন পরিবেশ এবং ইসলামী মূল্যবোধ সৃষ্টির প্রয়াস ।

* বার্ষিক বনভোজন ও শিক্ষাসফরের আয়োজন ।

* বার্ষিক পুরষ্কার ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ।

* ইনডোর আউটডোর ক্রীড়া প্রতিযোগীতার ব্যবস্থা ।

* ক্যাডেট পদ্ধতিতে সর্বোত্তম মানের শৃঙ্খলা ও নিরাপত্তা ।

* অভিভাবক গনের সাথে নিয়মিত যোগাযোগ রাখা ।

* সার্বক্ষনিক বিদ্যুৎ সরবরাহ ও সিসি ক্যামেরা মনিটরিং ।

Our Teachers